ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

ঈদগাঁওর ৩ গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে কোটি টাকা হাতিয়ে নিল কতিপয় প্রভাবশালী

প্রকাশ: ২০১৭-০৩-১০ ২২:০৭:১৫ || আপডেট: ২০১৭-০৩-১০ ২২:০৭:১৫

বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পৌছানোর ঘোষণা থাকলেও

ঈদগাঁও প্রতিনিধি::
কক্সবাজার সদর উপজেলার বাণিজ্যিক এলাকা সদর ঈদগাঁও ইউনিয়নের মেহেরঘোনা পশ্চিম ভাদিতলা ও পূর্ব ভাদিতলাসহ আশপাশের গ্রামে দ্রুত বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কথা বলে ৩ শতাধিক সাধারণ পরিবারের কাছ থেকে ৫/১০ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নিয়ে প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে কতিপয় প্রভাবশালী। স্থানীয় সচেতন মহল দীর্ঘদিন যাবত প্রতিবাদ করলেও কোন সূরাহা না হওয়ায় অবশেষে ইউপি চেয়ারম্যানের দ্বারস্থ হচ্ছেন গ্রাহকরা।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, ঈদগাঁও ইউনিয়নের ৩ গ্রামের প্রায় ৩ শতাধিক লোকজনের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে আত্মগোপনে রয়েছে জড়িত প্রভাবশালীরা। বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তারাও প্রতারক প্রভাবশালীদের সাথে যোগসাজশ রয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিটি ঘরে ঘরে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পৌছে দেয়ার ঘোষণা দেয়ার পরপরই চিহ্নিত প্রতারকরা ৩ গ্রামের কয়েকজন দালালের মাধ্যমে দ্রুত বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন ও বিদ্যুৎ সংযোগের কথা বলে সরলমনা সাধারণ লোকজনের কাছ থেকে মিটা প্রতি ৫/১০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। প্রায় এক বছর অতিবাহিত হলেও ঐ প্রতারকরা বিদ্যুৎ আসছে অযুহাত দেখিয়ে সময় ক্ষেপন করেছে।

এদিকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ ছৈয়দ আলমের কাছে ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহকরা জড়িতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলে তিনি দুয়েকদিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকার সাধারণ লোকজনকে ডেকে সূরাহা করে দেবেন বলে আশ্বাস দেন। কিন্তু সচেতন মহলের দাবী, জড়িত প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করতে চাইলে উল্টো তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করবে বলে হুমকি দেয়ায় দীর্ঘদিন গ্রাহকরা নিরবে তা সহ্য করেছে। অনেকের মতে, চেয়ারম্যান সুষ্ঠু সমাধান না করলে বিষয়টি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের দিকে চলে যাবে বলে মত প্রকাশ করেন।

এ ব্যাপারে ঈদগাঁও পুল্লী বিদ্যুতের এজিএমের সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, আমাদের শাখায় কেউ অবৈধ লেনদেন করেনি। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া সময়ের দাবীতে পরিণত হয়েছে।