ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

কক্সবাজারে চলছে কাবিটার ২১৭ প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ

প্রকাশ: ২০১৭-০৩-০৯ ২২:৩৯:৫৮ || আপডেট: ২০১৭-০৩-০৯ ২২:৩৯:৫৮

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও:
জেলায় ৯৩টি সেতু/কালভার্ট প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সরকারের দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক উপজেলা ভিত্তিক এসব প্রকল্পের কার্যাদেশ প্রদান প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানান, ৮ উপজেলায় উল্লেখিত সংখ্যক সেতু/কালভার্ট কর্মসূচী বাস্তবায়নে উপজেলা পর্যায়ে লটারী কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বাস্তবায়িতব্য এসব উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য মন্ত্রণালয় থেকে ২২ কোটি ৩৭ লাখেরও বেশি টাকা বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। প্রাক্কলিত অর্থ কক্সবাজার সদর, রামু, চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া, উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন স্থানে গ্রামীণ অবকাঠামো নির্মাণে ব্যয় করা হবে। জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ শাখা প্রণয়নকৃত ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের বিবরণী সূত্রে আরো জানা গেছে, জেলা ত্রাণ শাখার তত্ত্বাবধান ও মনিটরিঙ্গে জনগুরুত্বপূর্ণ এসব প্রকল্প শীঘ্রই আলোর মুখ দেখতে শুরু করবে।

এদিকে একই অর্থবছরে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় কাজের বিনিময়ে টাকা (কাবিটা) কর্মসূচীর কাজও চলমান রয়েছে। উপজেলা পরিষদ এবং সংসদ সদস্যদের নির্বাচনী এলাকাভিত্তিক উক্ত প্রকল্প চলমান থাকলেও কোন কোন এলাকার প্রকল্প তালিকা এখনো পাওয়া যায়নি বলে ঐ বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়। সূত্রমতে, জেলার প্রতিটি উপজেলায় ঐসব প্রকল্প পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। মোট ২১৭টি প্রকল্পের মাধ্যমে এর জন্য দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় বরাদ্ধ রেখেছে ৮ কোটি ৮৬ লাখ ৫১ হাজার ৬৬১ টাকা। যা সদর, রামু, চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া, উখিয়া ও টেকনাফে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্প তদারক করছে জেলা প্রশাসনের ত্রাণ শাখা।

নবাগত জেলা ত্রাণ ও পূনর্বাসন কর্মকর্তা জানান, প্রাক্কলিত অর্থের সিংহভাগ টাকা নির্বাচনী এলাকা তথা এমপি আসনের জন্য বরাদ্ধকৃত। উক্ত অফিসের প্রধান সহকারী জানান, এসব কর্মসূচী বাস্তবায়নের ফলে একদিকে যেমন অসহায় ও দরিদ্রদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে তেমনি গ্রামীণ অবকাঠামো পূর্বের তুলনায় শক্তিশালী ও সমৃদ্ধ হচ্ছে।