ঢাকা, সোমবার, ৪ জুলাই ২০২২

আলীকদমে মারমা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে লামায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশ: ২০১৭-০১-১৮ ২০:৪৬:৩৩ || আপডেট: ২০১৭-০১-১৮ ২০:৪৬:৩৩

আলীকদমে মারমা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে লামায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

লামা,(বান্দরবান) প্রতিনিধিঃ বান্দরবান আলীকদম উপজাতীয় আবাসিক বিদ্যালয়ের এক মারমা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে লামা সচেতন ছাত্র ও যুব সমাজের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে । বুধবার সকালে লামা সচেতন ছাত্র ও যুব সমাজের ব্যানারে লামা কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহার থেকে একটি বিক্ষোপ মিছিল বের করা হয়। “ বিচার চাই বিচার চাই ধর্ষক সাইফুল ইসলাম, মিজানুর রহমান ও কাজল বড়ুয়াসহ সকল ধর্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই, এ স্লোগানে শহরে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে লামা উপজেলা পরিষদের সামনে মনববন্ধনে মিলিত হয়। এ সময় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আদিবাসী শিক্ষার্থীরা ফেস্টুন পেপারে মাধ্যমে প্রতিবাদ জোরদার করে। ফেস্টুনে লেখা ছিল “ আর কত নরপশুদের হাতে আদিবাসী নারীরা ধর্ষণে শিকার হবে? স্বাধীন বাংলাদেশের আর কত মা-বোনদের ইজ্জত হারাতে হবে?

বাবু মং মারমা সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে সচেতন ছাত্র ও যুব সমাজে বক্তব্য রাখেন, থোয়াইশৈ মং মারমা, ক্য ক্য মারমা, মংসিং মারমাসহ প্রমূখ । পার্বত্য চট্রগ্রামে পাহাড়ি নারীরা কোথাও নিরাপদ নয় উল্লেখ করে বক্তারা আরো বলেন, যদিও ধর্ষিতার ভাইয়ের মামলা ভিত্তিতে অভিযুক্ত ধর্ষকদের পুলিশ গ্রেফতার করেছে, কিন্তু অপরাধীদের দ্রুত ও যথোপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত হবে কিনা সে বিষয়ে সংশয় রয়েছে। কারণ, এ পর্যন্ত নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ ঘটনাগুলো একটিরও সুষ্ঠু বিচার হয়নি। অতীতের ঘটনায়ও অপরাধীরা উপযুক্ত শাস্তি না পাওয়ায় ধর্ষণের ঘটনা দিন দিন বেড়ে চলেছে। ধর্ষকরা কয়েক মাস কারাগারে থাকার পর মানসিক রোগী বলে জামিন দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। এমন যদি চলতে থাকে তাহলে বাংলাদেশের মা-বোনেরা কেমনে স্বাধীন বাংলাদেশে চলাফেরা করবে? সমাবেত সকল শিক্ষার্থী ও যুব সমাজের নেতৃবৃন্দরা ধর্ষণের ঘটনায় অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করতে এবং কঠিনতম শাস্তি প্রদানের জন্য জোরদাবী জানান ।

উল্লেখ্যঃ ১৩ জানুয়ারি শুক্রবার আলীকদম উপজাতীয় আবাসিক বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী কে মিজানুর রহমান ধর্ষণ করে। এ সময়ে তার সহযোগী সাইফুল ইসলাম ঐ ভিডিও চিত্র ধারণ করে এবং ধর্ষণকারীরা ভিডিও চিত্রটি স্যোসাল মিডিয়া ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি প্রদান করে। কিশোরী বিষয়টি বাসায় জানালে তার ভাই বাদী হয়ে রোববার আলীকদম থানায় মামলা করেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ধর্ষক মিজানুর রহান ও সাইফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে।