ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

পেকুয়ায় বিরোধীয় জমি দখলে নিতে দিনদুপুরে ১৮রাউন্ড গুলিবর্ষণ

প্রকাশ: ২০১৭-০১-১৭ ১৯:২৩:২৮ || আপডেট: ২০১৭-০১-১৭ ১৯:২৩:২৮

পেকুয়ায় বিরোধীয় জমি দখলে নিতে দিনদুপুরে ১৮রাউন্ড গুলিবর্ষণ
পেকুয়া প্রতিনিধি::
পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের বকসু চৌকিদার পাড়া এলাকায় জমি দখল নিতে প্রতিপক্ষের উপর ১৮রাউন্ড গুলিবর্ষণ করেছে অপর পক্ষের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা।

মঙ্গলবার ১৭জানুয়ারি দুপুর ১টার দিকে এঘটনা ঘটে। এতে ওই এলাকায় ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। আকস্মিক গুলির শব্দে ঘর ছেড়ে নিরাপদ স্থানের খোঁজে ছুটতে থাকে এলাকার মানুষ। তবে এঘটনায় হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে পেকুয়া থানা থেকে মাত্র ১কিলোমিটার দূরত্বে প্রকাশ্যে দিবালোকে এহেন ঘটনা ঘটলেও পুলিশ নির্বিকার। ঘটনার ৫ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও অস্ত্রধারীদের আটক করতে সক্ষম হয়নি পুলিশ। এনিয়ে এলাকাবাসীরা ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে দিন কাটাচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  সুলতান আহমদ চৌধুরী, নজির আহমদ, ফরোক আহমদ চৌধুরী গং ও একই এলাকার শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ওহিদুল আলম চৌধুরী, শাহনেওয়াজ চৌধুরী গং এর জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে প্রায় অর্ধশত বছর ধরে। এ বিরোধের জেরে আদালতে দুপক্ষেরই একাধিক মামলা চলমান রয়েছে। বর্তমানে ওই বিরোধীয় জমি গুলো সুলতান আহমদ চৌধুরী, নজির আহমদ, ফরোক আহমদ চৌধুরী গংএর দখলে রয়েছে।

এদিকে ওই বিরোধীয় জমি দখল নিতে শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ওহিদুল আলম চৌধুরী, শাহনেওয়াজ চৌধুরী গং ভাড়াটে সশস্ত্র সন্ত্রাসী লিটন, আরমান, আলমগির, মাহাবুব, জামাল উদ্দিনের নেতৃত্বে আরো ২০-২৫জন সন্ত্রাসী এলাকায় ফাকা গুলি ছুড়ে ভীতি ছড়িয়ে জমি দখলের চেষ্টা চালায়।

এসময় সন্ত্রাসীরা বিরোধীয় জমির চিংড়ি ঘেরের টংঘর ভাংচুর ও বাধ কেটে ২০লক্ষাধিক টাকার চিংড়ি পোনা ছেড়ে দেয়।

এব্যাপারে বিরোধীয় জমির মালিক ফকরুল ইসলাম চৌধুরী ও আব্দু রহিম বলেন, আমাদের বৈধ মালিকানাধীন জমিতে ১৮রাউন্ড গুলিবর্ষণসহ সন্ত্রাসী তান্ডবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি আমরা। এছাড়া গুলিবর্ষণের ঘটনায় আমরা আতংকিত। আমরা এঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভূঁইয়া সাথে এব্যাপারে বক্তব্য নিয়ে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে, তিনি কল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।