ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

পেকুয়ায় পৃথক সংর্ঘষে মহিলাসহ আহত-৭, আটক-২

প্রকাশ: ২০১৭-০১-১১ ২১:৫০:১৬ || আপডেট: ২০১৭-০১-১১ ২১:৫১:০২

পেকুয়া প্রতিনিধি::

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের হীরাবুনিয়া এলাকায় দু’পÿের সংঘর্ষে দুই পরিবারের মা-মেয়ে ও স্বামী-স্ত্রী আহত হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে পূর্ব শত্রম্নতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় এলাকাবাসীরা আহতের উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন- একই এলাকার রশিদ আহমদের স্ত্রী রেজিয়া বেগম, তার ব্যবসায়ী পুত্র মো. মানিক(২৮) ও তার স্ত্রী তসলিমা ইয়াসমিন শিফা(২২)। এবং অপরপÿে আহত হয়েছেন আবু তাহেরের স্ত্রী জাহানারা বেগম(৪২) ও তার মেয়ে আশরাফা খানম পাখি(২৫)।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) জিয়া মো. মোস্ত্মাফিজ ভূইয়াঁ বলেন, এখনো লিখিত কোন অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অপরদিকে সকাল ৮টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ধারিয়াখালী এলাকায় হামলায় দুইজন আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করে। এঘটনায় পুলিশ কামরম্নল ও শাকিল সাজ্জাদ নামের দু’জনকে আটক করেছে।

আহতরা হলেন, পেকুয়া সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী এলাকার মুক্তিযোদ্ধা ডা. আফতাব উদ্দিনের ছেলে ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আমির আশরাফ চৌধুরী রম্নবেল(৩৫) ও একই এলাকার মৃত দলিলুর রহমানের ছেলে ও আমেরিকা প্রবাসী শফিউল আজম চৌধুরী(৫০)।

প্রত্যÿদর্শী ও স্থানীয় এলাকাবাসি জানিয়েছেন, প্রবাসি শফিউল আজম চৌধুরী ও ছাত্রলীগ নেতা আমির আশরাফ রবেল সকালে প্রাত: ভ্রমনে বের হন। এসময় পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাদের উপর অর্তকিত হামলা চালায়। এসময় ভীতি ছড়াতে সন্ত্রাসীরা ৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষন করে।

আহত শফিউল আজম চৌধুরী ও আমির আশরাফ রম্নবেল জানিয়েছেন, প্রতিদিনের ন্যায় সকালে প্রাত: ভ্রমনে বের হয়ে মগনামার ধারিয়াখালী এলাকায় পৌঁছলে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী মাতব্বরপাড়া এলাকার নুরম্নল আজিম চৌধুরীর ছেলে আসিফ, সাজ্জাদসহ ৭/৮জন সন্ত্রাসী আমাদের উপর স্বশস্ত্র হামলা চালায়।

পেকুয়া থানার ওসি জিয়া মোহাম্মদ ভুইয়াঁ বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’জনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।