ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

আচরণবিধি অনুসরণে সরকার প্রধানের হস্তক্ষেপ কামনা : ইসি

প্রকাশ: ২০১৫-১২-২০ ২০:৫৩:৩১ || আপডেট: ২০১৫-১২-২০ ২০:৫৩:৩১

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাইছে ইসি

জনপ্রতিনিধিদের আচরণবিধি অনুসরণে সরকার প্রধানের হস্তক্ষেপ কামনা করছে নির্বাচন কমিশন। সেই সঙ্গে বিএনপি’র নিয়মিত সমালোচনাকে ‘অযথা দোষারোপ’ বলে মনে করছেন একজন নির্বাচন কমিশনার। এছাড়া যারা (রিটানিং অফিসার) আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন না তাদের বিরেুদ্ধে ইসি ব্যবস্থা নেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ।

রবিবার ইসি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। সরকার দলীয় মন্ত্রী-এমপিদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে শাহনেওয়াজ বলেন, যারা সরকারের আছেন, তারা অন্যদের চেয়ে বেশি দায়িত্বশীল হবেন এটাই আশা করবো।

নির্বাচিত সরকারের অধীনে ভোট করতে গিয়ে এভাবে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনায় সরকারের ভাবমূর্তির বিষয়টিও জড়িত বলে জানান তিনি। বর্তমানে যারা সরকারে রয়েছে, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি- তাদের অনুরোধ করবো, তারা যেন আমাদের সহযোগিতা করেন। যদিও আমরা নির্বাচন কমিশন আলাদা, তারপরও সরকারের থাকা অবস্থায় নির্বাচন করছি, সরকারের ভাবমূর্তির প্রশ্ন উঠবে। সরকার প্রধানের কাছেও এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

যিনি সরকার প্রধান আছে, তাকেও বলবো বিষয়টি দেখার জন্য, বলেন শাহনেওয়াজ।

সরকারি সুবিধাভোগী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি অবহিত করতে ইতোমধ্যে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগে চিঠিও দিয়েছে ইসি সচিব। মন্ত্রী-এমপিদের উদ্দেশ্যে শাহনেওয়াজ বলেন, আপনাদের মাধ্যমে বলবো, সরকারে যারা আছেন, তারা যেন আমাদের সহযোগিতা করেন। আমাদের যেন অপ্রস্তুত না করেন এবং নিজেরাও যেন অপ্রস্তুত না হন।

এদিকে বিএনপি’র পক্ষ থেকে শনিবারও অভিযোগ করা হয়েছে- ইসি পক্ষপাতিত্ব ভূমিকা পালন করছে, পৌর ভোটে নির্বাচন কমিশন ও সরকার ‘পার্টনারশিপ’ হয়ে কাজ করছে।
এমন অভিযোগের বিষয়ে শাহনেওয়াজ বলেন, আমরা নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করছি। নিরপেক্ষতার জন্য চরম চেষ্টা করে যাচ্ছি। এরপরও কোনো দল অভিযোগ করলে তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। ইসির বিরুদ্ধে অযথা অভিযোগ না করার আহ্বান জানান তিনি।

বিধি ভঙ্গে ব্যবস্থা না নিলে রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

কিছু কিছু লোক আচরণ বিধি লঙ্ঘনের চেষ্টা করছে, আগে সেগুলো লক্ষ্য করা হয়নি; এখন অভিজ্ঞতা ও পরিবেশের কারণেই হোক শক্ত ব্যবস্থা নিতে পিছপা হব না। কর্মকর্তাদের সতর্ক করে শাহনেওয়াজ বলেন, যারা আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন না তাদের বিরেুদ্ধে আমরাই ব্যবস্থা নেব। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের পূর্ণ সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি।
নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা তাদের আশ্বস্ত করতে চাই, আপনারা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে আমরা পূর্ণ সহযোগিতা করবো। তবে ব্যবস্থা নিতেই হবে। কেউ না নিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

সাংবাদিকরা ভোটকেন্দ্রে আগের মতো যাবেন
ভোট কেন্দ্রে সাংবাদিক প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপে পুলিশের সুপারিশে দ্বিমত পোষণ করেছে নির্বাচন কমিশন। শনিবারের আইন শৃঙ্খলা বৈঠকের প্রসঙ্গ টেনে শাহনেওয়াজ বলেন, সুবিধা-অসুবিধার কথা বিভিন্ন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। তাদের বলেছি- সাংবাদিকরা আগে যেভাবে যেতেন, সেভাবেই যাবেন। তবে অন্যদের সুযোগ দেবেন।