ঢাকা, রোববার, ২৬ জুন ২০২২

একজন যুদ্ধাপরাধী বেঁচে থাকতে বিচার কার্য বন্ধ হবে না : সাহারা খাতুন

প্রকাশ: ২০১৫-১২-১৯ ১৮:৪৬:২৬ || আপডেট: ২০১৫-১২-১৯ ১৮:৪৭:০২

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্য বন্ধ হবে না : সাহারা খাতুন

csb24.com:: আওয়মী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি বিদেশে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা হত্যাকারীদের দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করার জন্য আহবান জানিয়েছেন।
একজন যুদ্ধাপরাধী বেঁচে থাকতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্য বন্ধ হবে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী জামাত শিবির ও বিএনপি চক্র যারা মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে তাদেরও বিচার করতে হবে।
আজ সকালে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা পরিষদের উদ্যোগে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক এইচ এম সোলায়মান চৌধুরীর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী এমাজ উদ্দিন প্রামাণিক এমপি, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. অসীম সরকার, সংগঠনের সহ-সভাপতি লায়ন আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।
‘বাঙ্গালীর স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী এমাজ উদ্দিন প্রামাণিক বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, ইতিহাসের সবচেয়ে ঘৃণ্যতম ১৯৭৫ সালের সপরিবারে বঙ্গবন্ধু এবং জেলখানায় জাতীয় চার নেতা হত্যাকান্ডের ঘটনা জাতির ইতিহাসে কালো অধ্যায়।
তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার হত্যার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের ফাঁসির আসামীদের অবিলম্বে দেশে এনে রায় কার্যকর করার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আরো সক্রিয় ও তৎপর হওয়ার আহবান জানান।
স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি বলেন, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের মতো আরো বহু উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এতে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে। এই জন্য দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রয়োজন।
সভাপতির বক্তব্যে সভাপতি আবুল কালাম আজাদ পাটোয়ারী বলেন, জাতীয় সংসদের আশ-পাশে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধিতাকারীদের কবর সরিয়ে নিতে হবে। যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না তাদের কবর ওই জায়গায় থাকতে পারে না।