ঢাকা, শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২

বনদস্যুদের হামলায় আপাররেজু বিট কর্মকর্তাসহ আহত-৩

প্রকাশ: ২০১৫-১১-০৩ ২১:২৯:০২ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৩ ২১:২৯:০২

Picture 657

নিজস্ব প্রতিনিধি, রামু:
রামু উপজেলার রাজারকুল রেঞ্জের আপাররেজু বিটে বনদস্যুদের আঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় রামু হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে জানা গেছে। গতকাল ০৩ নভেম্বর দুপুর ১.৩০মিনিটের সময় আপাররেজু বিটের বিট কর্মকর্তা, মোঃ গোলাম মোস্তফাসহ বন প্রহরী শফিকুল্লাহ পাটোয়ারী, আলী হায়দারসহ ৩জন গুরুতর আহত হয়। ঘটনায় জানা যায়, জঙ্গল দারিয়ারদীঘি মৌজাস্থ সংরক্ষিত বনের আর,এস ২২নং দাগের মোঃ আলী হায়দার টং ঘর নামক এলাকা ১৯৮১ ইং সনের জাম বাগানের গাছ কেটে এলাকার বহু মামলার আসামীগণের মধ্যে মৃত আলী আহমদ প্রকাশ দশালী এর পুত্র মোঃ সফুর(৪৪), মৃত আলী আহমদ প্রকাশ দশালী এর পুত্র মোজাফ্ফর (৪০), মৃত আলী আহমদ প্রকাশ দশালী এর পুত্র আজিজুল হক(৪০), হাবিবুল্লাহ প্রঃ হাবি এর পুত্র মাহমুদুল হক (২৫), আবদু শুক্কুর মেম্বার এর পুত্র কামাল উদ্দিন (৩৫), মৃত জাফর আলম এর পুত্র জয়নাল আবেদীন(৪১), মৃত আবদুল বারী এর পুত্র নুর মোহাম্মদ ভূট্টো(৪১), সাং-থোয়াইঙ্গাকাটা,হাতির ডেবা,থানা-রামু,জেলা-কক্সবাজার। অজ্ঞাতনামা আরও ৮/১০জনের নেতৃত্বে আসামীগণ পরস্পর যোগসাজসে এবং শলাপরামর্শক্রমে বনদস্যুদের হাতে ধালালো লম্বা দা, চাকু, লোহার রড, লাঠি সোটা দিয়ে বিট অফিসার মোস্তাফিজুর রহমানকে মাথায় গুরুতর জখম করে এবং বন প্রহরী শফি উল্লাহ পাটোয়ারী ও মোঃ আলী হায়দারকে এলোপাতাড়ী মারধর করে জঙ্গলে ফেলে চলে যায়। ঘটনার সংবাদ পেয়ে স্থানীয় লোকজন রাজারকুল রেঞ্জ কর্মকর্তা আমির হামজাকে অবহিত করলে তিনি ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় বিট কর্মকর্তা ও বন প্রহরীদের উদ্ধার করে রামু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। জানা গেছে, দীর্ঘদিন যাবৎ রাজারকুল রেঞ্জের আপাররেজু ও পার্শ্ববর্তী খুনিয়া পালং রেঞ্জের থোয়াংগাকাটা, দারিয়ারদীঘিসহ বিভিন্ন এলাকায় চিহ্নিত বনদস্যু সন্ত্রাসীরা সরকারী বন বিভাগের সামাজিক বনায়ন এবং সরকারী সম্পদ বিনষ্ট করে লক্ষ লক্ষ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। বনবিভাগের বন কর্মকর্তারা এসব বনদস্যু সন্ত্রাসীদের গড ফাদারদের ধরার চেষ্টা করলে তাহারা বিভিন্নভাবে বন বিভাগের কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারীদের হুমকি প্রদান করে আসছে। রামু থানায় তাদের বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। গুরুতর আহত গোলাম মোস্তফা ও তার সহকর্মী শফিউল্লাহ পাটোয়ারী ও মোঃ আলী হায়দার এর উপর সন্ত্রাসী কায়দায় হামলায় জড়িত ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবী জানিয়েছেন এলাকার সুশীল সমাজ। এ ব্যাপারে রামু থানায় একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে।