ঢাকা, রোববার, ২৬ জুন ২০২২

ইউরোপে প্রতিদিন আশ্রয় আবেদন করছে ৭০০ শরণার্থী শিশু

প্রকাশ: ২০১৫-১১-০৩ ১২:১৫:৫৯ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৩ ১২:১৫:৫৯

99715_ANA-PIC-1
csb24.com::
ইউরোপে প্রতিদিন গড়ে সাত শতাধিক শরণার্থী শিশু আশ্রয় আবেদন করছে। নতুন তথ্যে উঠে এসেছে গত বছরের তুলনায় এ বছর ইউরোপে শিশু শরণার্থীর সংখ্যা বেড়েছে দ্বিগুন। ইউনিসেফ ইউকের নতুন এক রিপোর্টের উদ্বৃতি দিয়ে এ খবর দিয়েছে বৃটেনের দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট। ওই রিপোর্টে বলা হয়, এ বছর জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইউরোপে আশ্রয় আবেদন করেছে ১ লাখ ৯০ হাজারেরও বেশি শরণার্থী শিশু। গত বছর একই সময়ে এ সংখ্যা ছিল ৯৮ হাজার। জাতিসংঘের শিশু অধিকার বিষয়ক সংস্থাটি আরও বলেছে, মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাতের কারণে পরিবারগুলো ইউরোপ পাড়ি দিতে ঝুঁকিপূর্ণ সফরে প্রবৃত্ত হতে বাধ্য হচ্ছে। বিশ্বের প্রতি ১০ শিশুর এক জন এখন সংঘাতময় এলাকাগুলোতে বেড়ে উঠছে। আর এমন শিশুর সংখ্যা ২৩ কোটি। সিরিয়াতে প্রতি ৫ শিশুর মধ্যে একজন শিশুকে সংঘাতের এলাকা পার করে স্কুলে বা পরীক্ষা দিতে যেতে বাধ্য হতে হচ্ছে। ইয়েমেনে মার্চ মাসের পর থেকে সহিংসতা বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে নিহত হয়েছে ৫৭৩ জন শিশু। এদিকে, সিরীয় শরণার্থীদের মধ্যে শিশু শ্রমের ঘটনা উঠে এসেছে। এছাড়াও, মেয়েদের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের ঘটনা বাড়ছে। ইউনিসেফ জানিয়েছে, সংস্থাটি গত বছর ৩০ লক্ষাধিক শিশুর সুরক্ষা দিতে সহায়তা করেছে। অভিভাবক বিহীন ৩৩ হাজার শিশুকে সংস্থাটি নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে গেছে। সহিংসতা থেকে শিশুদের রক্ষার্থে সংস্থাটি বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের প্রতি আহ্বান জানাতে বৃটিশদের অনুরোধ করেছে। ইউনিসেফ ইউকের উপ নির্বাহী পরিচালক লিলি ক্যাপ্রানি বলেছেন, ‘শিশুরা শ্রেণীকক্ষে পাঠরত অবস্থায় নিহত হচ্ছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বা ঘুমের মধ্যের হত্যার শিকার হচ্ছে তারা। অনেকে এতিম হয়ে গেছে। অপহরণ, ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। অনেককে সেনা হওয়ার জন্য বাধ্য করা হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, এসব শিশুদের সহিংসতা থেকে রক্ষা করা জীবন রক্ষার সামিল। ঠিক পানি, আশ্রয় আর ওষুধের মতো গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু একইভাবে তা অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে না। এর পরিবর্তন হতে হবে।’