ঢাকা, শনিবার, ২ জুলাই ২০২২

শান্তি চুক্তির সকল ধারা বাস্তবায়ন করা হবে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশ: ২০১৫-১০-৩১ ২০:৩০:৩২ || আপডেট: ২০১৫-১০-৩১ ২০:৩০:৩২

Rangamati Pic-31-10-15-01
জুঁই চাকমা,রাঙামাটি :: রাঙামাটির নানিয়ারচরে চেঙ্গী নদীর উপর ৪৩৫ মিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ৩১অক্টোবর শনিবার সকালে রাঙামাটির নানিয়ারচরবাসী আয়োজিত জনসভায় মন্ত্রী এ ঘোষণা দেন।

সেতু মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ইঞ্জিনিয়ারিং কোর আগামী ফেব্র“য়ারীতে এই সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করবে এবং ২০১৮ সালের জুন মাসের মধ্যে সেতু নির্মাণ কাজ শেষ হবে। সেতুটি নির্মিত হলে রাঙামাটি, নানিয়ারচর, লংগদু ও বাঘাইছড়ির মধ্যে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হবে।

নানিয়ারচর হাসপাতাল সংলগ্ন মাঠে আয়োজিত সমাবেশে পিসিজেএসএস(সন্তু গ্রুপ) নেতা রাঙামাটি -২৯৯ আসনের সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার, ৩৩৩-ম-৩৩ আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু, রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক পার্বত্য বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার, রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ মুছা মাতব্বর, নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ত্রিদীব কান্তি দাশ,পিসিজেএসএস (সংস্কারপন্থী) নেতা নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা, নানিয়ারচর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান’সহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং নানিয়ারচর উপজেলার বিভিন্ন জনগন উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন বর্তমান সরকার পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়ে গত মেয়াদে বেশ কিছু ধারা বাস্তবায়ন করেছে। কিন্তু বিএনপি সরকার ক্ষমতায় এসে চুক্তির একটি ধারাও বাস্তবায়ন করেনি। বরংচ তারা পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে বাঁধাগস্থ করেছে। শেখ হাসিনার সরকারের এই মেয়াদেই পার্বত্য শান্তি চুক্তির সকল ধারা অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করবে।

এর আগে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের হেলিকপ্টারে নানিয়ারচর আর্মি জোনে এসে পৌছালে সেনাবাহিনীর সদস্যরা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। পরে তিনি সেনাবাহিনীর জোন থেকে ¯িপ্রড বোর্ডে নানিয়ারচর ব্রীজ নির্মাণের স্থলে এসে পৌছালে নানিয়ারচর উপজেলাবাসী তাকে অভিবাদন জানান।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর এই ঘোষণার মধ্যে দিয়ে রাঙামাটিবাসীর দীর্ঘদিন ৩০ বছরের দাবী পুরণ হয়েছে। মন্ত্রীর ঘোষণার সাথে সাথে নানিয়ারচর বাসী উল্লাসে ফেটে পড়ে।