ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২

জুজুর ভয় দেখিয়ে খালেদা ষড়যন্ত্র করছেন : মায়া

প্রকাশ: ২০১৫-১০-২৯ ১৪:১৮:২৯ || আপডেট: ২০১৫-১০-২৯ ১৪:১৮:২৯

image_284499.maya
সি.এস.বি২৪:
বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কোনো সদস্য নেই দাবি করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, জুজুর ভয় দেখিয়ে খালেদা জিয়া বিদেশে বসে একটার পর একটা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোনো জঙ্গি নেই, আইএস নেই। নাম ভাঙিয়ে, জুজুর ভয় দেখিয়ে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করতে খালেদা জিয়া বিদেশে বসে একটার পর একটা ষড়যন্ত্র করে বাংলাদেশকে দুর্বল ও শেখ হাসিনার সরকারকে উৎখাত করতে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন।

বিএনপি-জামায়াত বাংলাদেশে বছরের পর বছর ষড়যন্ত্র, সন্ত্রাস ও হত্যার রাজনীতি শুরু করেছে দাবি করে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, খালেদা জিয়ার অপচেষ্টাকে নস্যাৎ করতে জনগণকে ধন্যবাদ জানান মায়া। এসব করেও যখন তারা দেখল শেখ হাসিনার সরকারকে কোনোভাবে ব্যাহত করা যায় না, তখন তারা নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। পুলিশ সদস্যকে হত্যা করেছে। হিন্দু-মুসলমান-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান বিভেদ সৃষ্টির জন্য হোসেনি দালানে বোমা হামলা হয়েছে। দুজন বিদেশিকে হত্যা করে এ দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করেছে। আরও চেষ্টা চলছে বলে বিভিন্ন পত্রিকা থেকে খবর পাচ্ছি- যোগ করেন মায়া।

বিএনপির নির্বাচনের দাবি প্রসঙ্গে মায়া বলেন, পরিষ্কার করে বলতে চাই ২০১৯ সালের একদিন আগেও নির্বাচন হবে না। যতই আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করেন, বিদেশি হত্যা করেন, মুসলমান-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান হত্যার চেষ্টা করেন। একাত্তরে জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছি, সোনার বাংলা গড়তে জীবন দিতে পিছপা হব না। দলীয়ভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন এবং এর সুফল শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তকে ঐতিহাসিক উল্লেখ করে মন্ত্রী মায়া বলেন, অতীতের নির্বাচনগুলো পক্ষান্তরে দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে যেত। প্রার্থীরা পাস করার পরে বলে আমি স্বতন্ত্র, এতে দায় দায়িত্ব থাকে না। জনগণের কাছে কমিটমেন্ট পূরণ করতে পারে না। এটা দীর্ঘদিন শেখ হাসিনা উপলব্ধি করেছেন। এ জন্য এখন থেকে সব স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে হবে।

নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত দলগুলো দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে পারবেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এতে দলের মেন্যুফেস্টো-কর্মসূচির বাইরে কাজ করা কঠিন হয়ে যাবে। দলীয় প্রতীকে হলে কর্মীরাও ঠিকানা খুঁজে পাবেন, সাধারণ মানুষও উপকৃত হবে। অচিরেই স্থানীয় সরকারে নির্বাচন হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আপনারা যারা নির্বাচনের চিন্তা-ভাবনা করেন, তারা দলীয়ভাবে এখন থেকে প্রস্তুতি নেবেন। দলের গঠনতন্ত্র বিরোধী কাজ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।