ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২

বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে চিৎমরমে পূণ্যার্থীদের ভীড়

প্রকাশ: ২০২২-০৫-১৪ ১২:৩৫:০৬ || আপডেট: ২০২২-০৫-১৪ ১২:৩৭:০০

 

মোঃ নজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাই:
বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে শনিবার (১৪ মে) সকাল থেকে কাপ্তাইয়ের ঐতিহ্যবাহী চিৎমরম বৌদ্ধ বিহারে হাজার হাজার পূর্নাথীর আগমন ঘটেছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত মারমা সম্প্রদায়সহ অন্যান্য বৌদ্ধ ধর্মালম্বীর দায়ক দায়িকারা সকাল হতে দূর দূরান্ত থেকে চোয়াং, ফুল এবং বিভিন্ন পুজার অর্ঘ্য সামগ্রী নিয়ে এসে চিৎমরম বিহারে জড়ো হয়েছেন।

ত্রি-স্মৃতি বিজড়িত মহান বুদ্ধ পূর্নিমা উপলক্ষে শনিবার সকালে চিৎমরম বৌদ্ধ বিহারের বোধিবৃক্ষ তলে হাজার হাজার দায়ক দায়িকাদের উপস্থিতিতে ধর্মীয় দেশনা প্রদান করেন চিৎমরম বৌদ্ধ বিহারের বিহার অধ্যক্ষ ভদন্ত পামোক্ষা মহাথের।

এসময় তিনি সকলকে মৈত্রীময় শুভেচ্ছা জানান এবং দেশ ও জাতির কল্যানে বিশেষ প্রার্থনা করেন। তিনি আরো বলেন, বুদ্ধের নীতি, আর্দশ ও অনুসরণ মেনে চললে পৃথিবীতে শান্তি আসবেই।

রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য অংসুই ছাইন চৌধুরী, বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্য মংসুইপ্রু মারমা, বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্য থোয়াইহা চিং মারমা, রাঙামাটি জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হ্লাথোয়াই মারমা, ইউপি সদস্য ক্যপ্রু চৌধুরী, বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্য পাইসু মারমাসহ এসময় বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্য, পুজনীয় ভিক্ষু সংঘ ও দায়ক দায়িকারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বৌদ্ধ পূর্নিমা উপলক্ষে মহা বোধিবৃক্ষে চন্দন জল সিঞ্চন করেন বিহার অধ্যক্ষ ভদন্ত পামাক্ষা মহাথের, পুজনীয় ভিক্ষু সংঘ ও দায়ক দায়িকারা। এসময় সাধু সাধু সাধু ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে বিহার প্রাঙ্গন।

চিৎমরম বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মংসুইপ্রু মারমা জানান, তথাগত গৌতম বুদ্ধের ত্রি-স্মৃতি বিজরিত আজ মহা শুভ বৌদ্ধ পূর্নিমা। আজকের এই বৈশাখী পূর্নিমা তিথিতে গৌতম বুদ্ধ জন্মলাভ, বুদ্ধত্ব লাভ ও পরিনির্বান লাভ করে। এইদিন আমাদের সকলের জন্য পুন্যময় দিন।

রাঙামাটি আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট হ্লাথোয়াই মারমা জানান, আজকের দিনটা গৌতম বুদ্ধের জন্ম ও বুদ্ধত্ব লাভ এবং বুদ্ধের পরিনির্বানের দিন হবার কারনে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের একটি বিশেষ পূন্যময় দিন।

বিহারের আগত দায়ক দায়িকারা জানান, আজকের পূন্যময় দিনে আমরা সকলে বিহারে সমবেত হয়েছি পুন্যলাভ করার জন্য।